চুনারুঘাটে রহস্যে ঘেরা অপহরণ মামলার ভিকটিমকে উদ্ধার করেছে পুলিশ

**পুলিশ সুপারের নির্দেশে ও ওসি নাজমুল হকের নেতৃত্বে
**চুনারুঘাটে রহস্যে ঘেরা অপহরণ মামলার ভিকটিমকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রায়হান আহমেদ : চুনারুঘাটে রহস্যে ঘেরা অপহরণ মামলার ভিকটিমকে বিশেষ অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করেছে থানা-পুলিশ।

সাজানো অপহরণ মামলার ভিকটিম তোফাজ্জল ইসলাম(১১) কে গতরাতে গাজীপুর জেলার শ্রীপুর থানার কেওয়া মাওয়া এলাকার এম এম স্পিনিং মিল লিমিটেড থেকে উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্লাহ বিপিএম পিপিএম’র নির্দেশ ও নিবিড় তত্ত্বাবধানে চুনারুঘাট থানার চৌকস অফিসার ইনচার্জ শেখ নাজমুল হকের নেতৃত্বে একদল পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে উদ্ধার করেন।

তোফাজ্জল ইসলাম চুনারুঘাট উপজেলার বাগিয়ারগাঁও গ্রামের ওয়াহিদ মিয়ার ছেলে।

জানা যায়, গত বছরের ৩০শে জানুয়ারি চুনারুঘাট উপজেলার বাগিয়ারগাঁও গ্রামের আব্দুল জলিলের পুত্র মোঃওয়াহিদ মিয়া তার ১১বছরের ছেলে তোফাজ্জল ইসলামকে একই গ্রামের রমিজ আলীগংরা অপহরণ করেছে এমন অভিযোগে হবিগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে অভিযোগ দায়ের করলে বিজ্ঞ আদালত অভিযোগ আমলে নিয়ে চুনারুঘাট থানাকে তদন্তের নির্দেশ দেন। সেই থেকে মামলাটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণভাবে তদন্ত করেছে চুনারুঘাট থানা-পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মামলার বাদী ভিকটিমের পিতা তাকে লুকিয়ে রেখে এই মামলাটি দায়ের করেন। অবশেষে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে পুত্রকে লুকিয়ে পিতার অপহরণ নাটকের যবনিকাপাত করতে সক্ষম হয় চুনারুঘাট থানা-পুলিশ।

চুনারুঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাজমুল হক জানান, পিতা কর্তৃক সাজানো অপহরণ নাটকের ভিকটিম তোফাজ্জল ইসলামকে উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারকৃত তোফাজ্জল ইসলাম জানিয়েছে- গত ছয় মাস যাবত এমএম স্পিনিং মিলস লিমিটেডে শ্রমিকের কাজ করছিল এবং মামলার বাদী তার পিতা তাকে লুকিয়ে রেখে এই মামলাটি দায়ের করেন। জবানবন্দি দেয়ার জন্য আমরা ভিকটিমকে আদালতে প্রেরণ করেছি।

     এই ক্যাটাগরীর আরো খবর

ge-418" />