চুনারুঘাট ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি হত্যার ঘটনায় ৪জনের বিরুদ্ধে মামলা

আব্দুর রাজ্জাক রাজু, চুনারুঘাট: হবিগঞ্জের চুনারুঘাট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি, আহলে সুন্নাতওয়াল জামাত চুনারুঘাট উপজেলার সভাপতি, ও প্রবীণ মুরব্বী আলহাজ্ব আবুল হোসেন আকল মিয়া (৬৮) হত্যা কান্ডের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। শুক্রবার (০২ মার্চ) দিবাগত রাতে নিহতের ছেলে বকুল মিয়া বাদী হয়ে পৌর কাউন্সিলর কুতুুুব আলী ও ধান চাউল ব্যবসায়ী রঞ্জন পালসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা করে। চুনারুঘাট থানার ওসি কেএম আজমিরুজ্জামান বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেন ।

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার (০১ মার্চ) ভোর সাড়ে ৫টায় মসজিদে নামাজে আসার পথে সন্ত্রাসীরা তাকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। গুরুতর অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওযার পর সকাল সাড়ে ৮টায় তিনি মারা যান।চন্দনা গ্রামের বাসিন্দা ও চুনারুঘাটের সকলের পরিচিত মুখ হাজী আবুল হোসেন আকল মিয়া তার পৌর শহরে বাল্লা রোডের বাসায় বসবাস করতেন।বৃহস্পতিবার ভোরে সাড়ে ৫টার দিকে অন্যান্য দিনের মতো তিনি তার নিজের গড়া আল মদিনা মসজিদে ফজরের নামাজ আদায় করতে ঘর থেকে বের হন। মসজিদের ১শ গজ দুরেই বাল্লা রোডের কাছে পুর্ব থেকে উৎপেতে থাকা সন্ত্রাসীরা তাকে একা পেয়ে এলোপাতারি হাতুরি আঘাত করে এবং দা দিয়ে কুপিয়ে মারাত্বক জখম করে। ঘটনার পর পরই স্থানীয় দুজন মহিলা রাস্তায় হাঁটতে বের হয়ে তার রক্তমাখা বডি দেখতে পেয়ে চিৎকার শুরু করেন। তখন মসজিদের মুসল্লীরা দ্রুত নামাজ শেষ করে এসে রাস্তার পাশে একটি গলী থেকে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় দেখতে পায়। সাথে সাথে তাকে প্রথমে চুনারুঘাট ও পরে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর সকাল সাড়ে ৮টায় তিনি মারা যায়। নিহতের মুখে অসংখ্য হাতুরির আঘাতের চিহ্ন রয়েছে এবং ঘাড়ে মারাত্বক জখম রয়েছে।

     এই ক্যাটাগরীর আরো খবর

ge-418" />