চুনারুঘাটে কাপড়ের দোকানে ৭ লাখ টাকার মালামাল চুরি

চুনারুঘাট প্রতিনিধি : চুনারুঘাটের পল্লীর এক বাজারে এক রাতে দুটি ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানে চুরি সংঘটিত হয়েছে। চোরেরা প্রায় ৭ লাখ টাকা মালামাল লুটে নিয়ে যায়। চুরির মালামাল বহনকারী পিকআপ ভ্যানটি জনতা আটক করে থানায় জব্দ করেছে এবং পিকআপ ভ্যানের চালক পলাতক রয়েছে। এ চুরির ঘটনায় মোহাম্মদী ক্লথ ষ্টোরের মালিক আবুল কালাম পন্ডিত মিয়া বাদী হয়ে চুনারুঘাট থানায় পিক ভ্যানের চালক মোঃ সোহাগ মিয়া (২৭)সহ ৪/৫জন অজ্ঞাত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মামলা নং (০১/৫-১০-১৭) দায়ের করেছেন। মামলার এক সপ্তাহ পরও পুলিশ এ ঘটনায় জড়িত কোন আসামীকে গ্রেফতার করতে পারে নি। এ নিয়ে মামলার বাদী প্রকৃত বিচার পেতে সংকোচবোধ করছেন।
জানা যায়, গত ৩ অক্টোবর রাতে উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের বাসুল্লা বাজারের মোহাম্মদী ক্লথ ষ্টোরের মালিক প্রতিদিনের ন্যায় বেচা-কেনা করে রাত ৯টায় দোকান তালা লাগিয়ে বাসায় চলে যান। ভোর সকালে বাজার থেকে এক ব্যক্তি ফোনে জানায় যে তার দোকানে চুরি হয়ে গেছে। পরে এসে তিনি দোকানের সাটারের তালা ভাঙ্গা ও দোকান খোলা পান। দোকানের মালিক পন্ডিত মিয়া বলেন-রাতে কোন একসময় তালা ভেঙ্গে একদল চোর দোকানে প্রবেশ করে। চোরেরা দোকানের শাড়ী, লুঙ্গী, থ্রিপিচ, ল্যাংগার জামা, রেডি সালোয়ার কামিজসহ ভেরাটিক কাপড়চোপর নিয়ে যায়। যার আনুমানিক মূল্য প্রায় ৬ লাখ ১১ হাজার টাকা। পরে চুনারুঘাট থানায় খরব দিলে থানার এসআই ওমর ফারুক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি মামলা তদন্ত করছেন।
এদিকে ঘটনার পরের দিন বুধবার দোকানের মালিক আবুল কালাম পন্ডিত মিয়া চোরাইকৃত মালামালের খোঁজ বের হলে রাজীব মিয়া নামে এক ব্যক্তি তাকে জানায়, গত রাতে একটি নীল রংয়ের পিকআপ ভ্যানে ৫/৬ জন লোক গভীর রাত পর্যন্ত ওই দোকানের সামনে অবস্থান করে। ওই দিন ভোর রাতে একটি বিচার শালিস থেকে ফেরার পথে উপজেলার আমুরোড বাজারের মুধু মিয়া ও ফয়সাল মিয়া ভোর রাতে দেখতে পান ৪/৫জন লোক মালামাল বোঝাইকৃত পিকআপ ভ্যানটি ধাক্কা দিয়ে স্টার্ট করে বাসুল্লা বাজারের দিক হতে বের হয় যায়। তাদের কথা অনুযায়ী বুধবার বিকাল ৪টায় দোকানের মালিক একই উপজেলার রানীগাঁও বাজারের দক্ষিণ দিকে সোহাগ মিয়ার বাড়ির সামন থেকে ওই নাম্বারবিহীন পিকআপ ভ্যাটনটি দেখতে পেয়ে বাসুল্লা ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোঃ সালেক মিয়া সহ এলাকার লোকজন আটক করে। পরে চুনারুঘাট থানায় খরব দিলে পুলিশ এসে গাড়িটি থানায় নিয়ে যায়। জব্দকৃত পিকআপ ভ্যানের মালিক উপজেলার পনাওগাঁও গ্রামের শহিদ মিয়া। এ ব্যাপারে চুনারুঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ কে,এম আজমিরুজ্জামান বলেন- আসামীদের গ্রেফতার করতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

     এই ক্যাটাগরীর আরো খবর

ge-418" />