হবিগঞ্জে সংঘর্ষে আহত শতাধিক

নিজস্ব প্রতিনিধি : হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বেকিটেকা গ্রামে মাছ বিক্রির টাকা নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ অন্তত ১৫০ জন আহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সকালে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এসময় ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ ৮ জনকে আটক করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ওই এলাকার ছুরাব আলী স্থানীয় বাজারে মাছ বিক্রির ব্যবসা করেন। তিন দিন আগে একই এলাকার নবীন মিয়া তার কাছে বাকীতে মাছ ক্রয় করেন। বুধবার সকালে ছুরাব আলী টাকা চাওয়াতে দুই জনের মধ্যে বাক-বিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে উভয়পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে ছুরাব আলীসহ ১৫ জন আহত হয়।

খবর পেয়ে স্থানীয় মরুব্বিরা বিষয়টি নিস্পত্তির আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। কিন্তু বুধবার রাতে উভয় পক্ষ আবারও প্রস্তুতি নিতে থাকে সংঘর্ষের জন্য। ফের বৃহস্পতিবার সকালে আবারও উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

দুই ঘন্টাব্যাপি সংঘর্ষে নারীসহ অন্তত ১৫০ জন আহত হয়।

আহতদের মাঝে নায়েব আলী, সৈয়দ হোসেন, আমীর আলী, সায়েদ মিয়া, মর্তুজ মিয়া, জব্বার মিয়া, বিলাল মিয়া, জাহির মিয়া, রমহান মিয়া, গুলচান বিবি, ফাতেমা বেগম, বায়েজিদ মিয়া, জাকির মিয়া, নায়েব আলী(২), জিহাদ মিয়া, রুস্তম মিয়া, সখিনা বেগম, জান্নাতুল ফেরদৌস, শিউলি আক্তার, বেনু মিয়া, জোৎস্না বেগম, লিমা আক্তার, সাইদুর মিয়া, বজলু মিয়া, মাহমুদুল হাসান, আব্দুর রহমান, রিনা বেগম, নুরুল আমিন, মো. লতিফ, চনু মিয়া, এমরান মিয়া, খেলু মিয়া, জবেদা আক্তার, হারুন মিয়া, জলিল মিয়া, খাদিজা আক্তার, রুবেল মিয়া, তুরাব আলী, আবুল কালামসহ শতাধিক লোকজন হবিগঞ্জ জেলা আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়।

গুরুতর অবস্থায় তিনজনকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। অন্যদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

স্থানীয় লুকড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফরহাদ আহমেদ আব্বাস জানান, বুধবার রাতে উভয় পক্ষের সাথে আলোচনাক্রমে বিরোধটি সালিশের মাধ্যমে নিস্পত্তির সিদ্ধান্ত হয়। আগামী মঙ্গলবার সালিশের দিন ধার্য্য ছিল। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালে পুনরায় উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।
হবিগঞ্জ সদর থানার ওসি ইয়াছিনুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মাছ বিক্রির টাকা নিয়ে কয়েকদিন যাবৎ সেখানে বিরোধ চলে আসছে। বুধবার রাত ৪টা পর্যন্ত উভয় পক্ষের সাথে আলোচান করা হয় তারা যাতে পুনরায় সংঘর্ষে না জড়ায়। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালে তারা আবারও সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। পুলিশ এই ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে ৮ জনকে আটক করেছে।

     এই ক্যাটাগরীর আরো খবর

ge-418" />